বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮
অনলাইন ডেস্ক
  ০৭ এপ্রিল ২০২১, ১৯:২৩

ফখর-বাবরের ব্যাটে পাকিস্তান ৩২০

ফখর-বাবরের ব্যাটে পাকিস্তান ৩২০
ইনাম উল হক এর সঙ্গে ওপেনিং পার্টনারশিপে ফখর জামান।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৫০তম ম্যাচে ৬ষ্ঠ সেঞ্চুরি উদযাপন করেছেন ফখর জামান।তার সেঞ্চুরিতে চড়েই সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে পাকিস্তান করেছে ৩২০/৭ স্কোর।

ফখর জামান শুরু থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন পাকিস্তানের ব্যাটিংয়ে।টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ওপেনিং পার্টনারশিপে ইনাম উল হক এর সঙ্গে ১১২ রানে রেখেছেন অবদান।৭৩ বলে ৫৭ রানে থেমেছেন ইনাম উল হক মহারাজের বলে লং অনে ক্যাচ দিয়ে। বাবর আজমকে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৮৬ রানেও রেখেছেন অবদান।৬২ বলে হাফ সেঞ্চুরির পর পরের হাফ সেঞ্চুরিতে খেলেছেন ৩৭টি বল। সেঞ্চুরির পর মহারাজকে প্যাডেল খেলতে যেয়ে উইকেটের পেছনে দিয়েছেন ক্যাচ (১০৪ বলে ৯ চার,৩ ছক্কায় ১০১)। সেঞ্চুরির পথে ছিলেন বাবর আজমও। ৫৫ বলে ১৬তম হাফ সেঞ্চুরি উদযাপনকে ১৩তম সেঞ্চুরির পথে করেছেন ধাবিত। ডেথ ওভারে নিয়েছিলেন ঝুঁকি। ইনিংসের শেষ বলে ফিলুকাওয়োকে ছ্ক্কার শটে সেঞ্চুরি করতে যেয়ে দিয়েছেন ক্যাচ (৮২ বলে ৭ চার,৩ ছক্কায় ৯৪)। ৭ম উইকেট জুটিতে হাসান আলীকে নিয়ে ২৪ বলে ৬৩ রানের পার্টনারশিপে দিয়েছেন নেতৃত্ব পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। যে করেই হোক,তিন শ' প্লাস স্কোর করতেই হবে। এই অভীষ্ঠ লক্ষ্যকে সামনে রেখে ব্যাট করেছেন বাবর। পাকিস্তানের স্কোর শিটে শেষ ৬০ বলে ৯০ রান উঠেছে তার ব্যাটিংয়েই। কৃতিত্বটা দিতে হবে শ্লগে হাসান আলীকেও । ব্যাটকে তরবারি বানিয়ে ১১ বলে ৪ ছক্কা,১ চার এ ৩২ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকা ৭ বোলার ব্যবহার করেছেন। তবে তাদের মধ্যে বাঁ হাতি স্পিনার কেশব মহারাজ ছিলেন সফল (৩/৪৫)। নতুন বলে শুরু করা অফ স্পিনার মার্করামও দারুণ বল করেছেন (২/৪৮)।

পেস সমৃদ্ধ প্রোটিয়া বোলাদের মধ্যে এদিন স্পিনাররাই রাজত্ব করেন। ৪৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেয়া কেশব মহারাজই ছিলেন সেরা বোলার। ৪৮ রানে ২ উইকেট নিয়ে খুব বেশি পিছিয়ে ছিলেন না মার্করাম। শুরুতে, মধ্যভাগে এবং ডেথ ওভারে যে বোলিং তিনি করেছেন আজ, তা পার্ট টাইম বোলার হিসেবে তার পক্ষে অসামান্য।

ফখর জামান
আরও খবর
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত